LEARN HOW 5 FAMOUS T-SHIRT BRANDS ACHIEVED SUCCESS

Share This Post

Share on facebook
Share on linkedin
Share on twitter
Share on email

কীভাবে ৫টি ফেমাস টি-শার্ট ব্র্যান্ড সাফল্য অর্জন করেছে

একসময়, ব্র্যান্ডিং সিম্পল ছিল – এখানে একটি লোগো, সেখানে কিছু রঙের একটি স্প্ল্যাশ, এবং হয়তো একটি ট্যাগলাইন। কিন্তু কনজিউমার যেমন বিবর্তিত হয়েছে, ঠিক তেমনি তাদের প্রয়োজনের ক্ষেত্রেও ব্রান্ডিং অনেককিছু বুঝিয়ে থাকে। আজকে, কনজিউমার প্যাশন, শুভাকাঙ্ক্ষা এবং কারেজ সম্পর্কে স্টোরিগুলো ক্রেভ করে থাকে। যে ব্র্যান্ডগুলো বার পূরণ করতে ফেইল হয় তারা কুইকলি ডাউন এ  পরিণত হয়, যদিও এগুলো সোশ্যাল মিডিয়া স্ট্যান্ডিংয়ে বুস্ট হিসাবে কুইক্লি রিওয়ার্ড করা হয়েছে, আজকের দিনে তা গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড।

যদিও এটি অনেক সংস্থার জন্য তুলনামূলকভাবে নতুন ডেভেলপমেন্ট, মুষ্টিমেয় ওল্ড-স্কুল কুল ক্যাটসরা এই পদ্ধতির সাহায্যে হিউজ সাকসেস পেয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া জন্মের অনেক আগে। তাদের চলমান সাফল্যের জন্য অরজিন্যালিটি এবং প্যাশনের টেস্টামেন্ট ছিল সবচেয়ে বড় পাওয়ার।

তবে কেবল এটির জন্য আমাদের কথা শুনতে যাবেন না। নিজের জন্য দেখুনঃ ৫টি টি-শার্ট ব্র্যান্ড কিভাবে সাকসেস অর্জন করেছে।

১. স্ট্যাসি

স্ট্যাসি ম্যাগাজিন অ্যাড ১৯৮৩ (বামে) স্ট্যাসি সামার ২০১৬ লুকবুক (রাইট)

আইকনিক স্ট্যাসি  ব্র্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা, শন স্ট্যাসি, একজন সার্ফবোর্ড শেপার হিসাবে শুরু করেছিলেন যারা কিনা কেবল কিছু বোর্ড সেল করতে চেয়েছিলেন। প্রমোশন্যাল এফোর্টে স্ট্যাসি সার্ফবোর্ডে থাকা একই সিগনেচার এর সাথে টি-শার্টে প্রিন্ট করেন এবং তার ফার্স্ট সার্ফবোর্ড ট্রেড শোতে তিনি পা রাখেন। প্রমোশন্যাল এফোর্ট হিট করে, কিন্তু আয়রনিক্যালি এটাই সেই টি-শার্ট যা সবাই চেয়েছিল।

স্ট্যাসির সিগনেচার ইউনিকনেসস তার টি-শার্টের প্রাথমিক চাহিদা এনে দেয় – গ্রাফিটির স্টাইলিংটি আসলে তাঁর আর্টিস্ট আঙ্কেল জ্যান স্ট্যাসি দ্বারা ইন্সপায়ার্ড হয়েছিল। তবে, স্ট্রিটওয়্যারের আইকন হিসাবে ব্র্যান্ডটির অনগোয়িং ডিমান্ড এবং ধারাবাহিক স্বীকৃতি ঘটেছে কারণ স্ট্যাসি যা করেছে তা অনেক ব্র্যান্ড এখনো আবিষ্কার করতে পারেনিঃ 

  • কন্সিস্টেন্সিঃ স্ট্যাসি যখন ক্যাজুয়াল স্ট্রিটওয়্যারে তাদের নিশ খুজে পায়, তারা প্রতিনিয়ত পজিটিভ ছিল এবং তারা ফ্ল্যাশি ট্রেন্ডসকে কখনোই ফলো করত না। এই দিনে, স্ট্যাসি এপারেল এখনও ইউনিক সিগনেচার, ইউনিক ডিজাইন এবং তাদের ফার্স্ট সাপোর্টারদের লেইডব্যাক এটিটিউড কে রক করে দেয়।
  • ওয়ার্ড-অফ-মাউথঃ এর পুরো ইতিহাস জুড়ে, ব্র্যান্ড মার্কেটিংকে ইগনোর করেছে – বড় এবং ছোট উভয়ই তাদের ফ্যানদের প্রভাব এবং স্বীকৃতির উপর নির্ভর করে। স্ট্যাসিকে কখনই অন্যকে বলতে হয়নি এটি একটি কুল ব্র্যান্ড, অন্য সবাই ইতিমধ্যে তাদের জন্য সেটা করছিল।
  • এক্সক্লুসিভিটিঃ স্ট্যাসি ব্র্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন এবং সহজলভ্যতার উপর কঠোর নিয়ন্ত্রণ রেখেছিল। চাহিদা বেড়েছিল কারণ তিনি লিমিটেড ব্যাচে নিউ প্রোডাক্ট সাপ্লাই করতেন এবং তার ব্র্যান্ডটি বড় রিটেইলার বাইরে রেখেছেন। আজকে, ব্র্যান্ডের নিখুঁত আকার এটিকে বেশ কয়েকটি লার্জ রিটেইলারদের মধ্যে পুশ করা হয়েছে, তবে স্ট্যাসি বুটিকসে এখনো এক্সক্লুসিভ অফার রিলিজগুলো শুধু সেখানেই এভেইলেবল থাকে।

২. জনি কাপকেক

অরিজিনালি জনি কাপকেক টি (বামে) অ্যান্ড জনি কাপকেক রেড প্ল্যামবার ক্রসবোন টি ২০১৬ (ডানে)

জনি আর্ল, জনি কাপকেক হিসাবে বেশি পরিচিত, একটি রসিকতা হিসাবে তাঁর টি-শার্টের লাইনটি শুরু করেছিলেন। সহকর্মীরা প্রায়শই তার প্রথম নামের সাথে নতুন নতুন নাম যুক্ত করতে থাকে – জনি অ্যাপলিসিড, জনি প্যানকেকস, জনি কাম-লেটলি ইত্যাদি। আর্ল তার ব্র্যান্ডের জন্য একটি টি-শার্ট ডিজাইন করার সময় নিজের জন্য একটি ডাকনাম যুক্ত করতে চেয়েছিলেন, “জনি কাপকেকস” লেটেস্ট উপস্থাপনা বলে মনে হয়। ১৫ বছর এবং প্রচুর ঘসা মাজার পর, এই জোক সর্বত্রে একটি ওয়াইল্ডলি পপুলার ব্রান্ডের সাথে নিজস্ব কাল্টে ফলো করতে থাকে।

জনি কাপ কেক এর কী এমন কারণ যা হাজার হাজার ফ্যান সিগনেচার কাপকেক নিজেদের শরীরে ট্যাটু  করে এবং ক্রসবোনগুলি দিয়ে আঁকা টি-শার্টের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড় করিয়ে দেয়?

  • এক্সক্লুসিভিটিঃ জনি কাপকেক ব্র্যান্ড সম্পর্কে সমস্তকিছু টাইটলি কন্ট্রোল্ড করা হয়। ফ্যানরা কেবল জনি কাপকেক ওয়েবসাইট থেকে বা  জনি কাপকেক বুটিকের একটিতে ডাইরেক্ট প্রোডাক্ট পারচেজ করতে পারেন। ব্রান্ডটি এক্সট্রিমলি লিমিটেড স্পেশ্যাল রিলিজের জন্য পরিচিত।
  • ওয়ার্ড-অফ-মাউথঃ স্ট্যাসির মতো, জনি কাপকেকস কখনও ট্রেডিশন্যাল এডভার্টাইজিং উপর নির্ভর করেনি। এর ইউনিক ডিজাইন লোকালদের কাছ থেকে প্রাথমিক আগ্রহটি পাওয়া গিয়েছে, কিন্তু জনি কাপকেকস ওয়ার্ড অফ মাউথ প্রধানত গ্রো করেছে। এটির বেকারি-থিমযুক্ত স্টোরগুলোর নতুনত্ব, পার্সোনাল প্যাকেজিং বা কোন প্রোডাক্ট রিলিজের জন্য উইন্ডিং লাইনস হোক না কেন, ব্র্যান্ডটি সর্বদা ফ্যানদের কাছ থেকে পজিটিভ বাজ জেনেরেট করে।

স্টোরিঃ  ব্রান্ডের প্রতি এতো ভালোবাসার পিছনে একটি মানুষের হাত রয়েছে। এমনকি ১৫ বছর পরেও, এটা বলা যায় যে জনি কাপকেকস ব্র্যান্ডটি এর প্রতিষ্ঠাতা জনি আর্লের একটি এক্সটেনশন। প্রতিটি ডিটেইলসে বিশদ তদারকি করবার জন্য তার ইনসিস্টেন্স তার ফ্যানদের সাথে একটি পার্সোনাল এক্সপেরিয়েন্স ক্রিয়েট করে। তারা আন্ডারডগ স্টোরিটির প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করেছে – গিগসগুলোর মধ্যে তার গাড়ী থেকে টি-শার্ট বিক্রি করছে – এবং এখনও তিনি প্রতিটি শার্টের প্রতি যে অতিসতর্ক মনোযোগ দেয় যা বেশ প্রশংসা করবার মতো।

৩. বাস্টেডটি

বাস্টেডটি গিলফ ২০০৪ (বামে) অ্যান্ড বাস্টেডটি রিক আস্টলে ফর প্রেসিডেন্ট (২০১৬) (ডানে)

তুলনা করতে হলে, বাস্টেডটিস টি-শার্টের দুনিয়াতে কিছুটা নতুন। গুড ফ্রেন্ড রিকি ভ্যান ভিন, জশ আব্রামসন, জ্যাক ক্লিন এবং জ্যাকব লডউইক একটি সাইড বিজনেসটি ফান হিসাবে কলেজহিউমোর ডট কম মেইনটেইনের জন্য কস্ট পে শুরু করেছিলেন। দলটি ২০০৪ সালের মার্চ মাসে ১০ টি শার্টের ডিজাইন স্কেচ করতে বসেছিল এবং মজার মজার টি-শার্টগুলি কলেজহুমর ফ্যান বেসের সাথে তাত্ক্ষণিকভাবে হিট হয়েছিল। দলটি ২০০৪ সালের মার্চ মাসে ১০টি শার্টের ডিজাইন স্কেচ করতে বসেছিল এবং ফানি টি-শার্টগুলো কলেজহিউমোর ফ্যান বেসের সাথে ইন্সট্যান্ট হিট হয়েছিল।

বাস্টেডটিজের সাকসেস স্ট্যাটি এবং জনি কাপকেক থেকে ডিফারেন্ট ফ্যাক্টর উপর নির্ভর করে হয়েছেঃ

  • নিশঃ কো-ফাউন্ডার তাদের টার্গেট অডিয়েন্সদের ভিতরে এবং বাইরে থেকে জানতেন, কলেজহিউমোর একটি লোয়াল ফ্যানবেস ইস্টাব্লিশ করেছিলেন। তাদের নিশ সম্পর্কে এতো ভালোভাবে জানার কারনে বাস্টেডটিসকে সুযোগ করে দিয়েছিলো কন্সিটেন্টলি শার্ট ক্রিয়েট করতে যা ফ্যানদের রেসোনেট করেছিলো। এক দশক পরে এবং তারা তাদের ১৮-২৮ বছর বয়সী ডেমোগ্রাফিকদের মাঝে ফানি কন্টেন্ট মার্কেটিং এ ধারাবাহিক থেকে যায়।
  • এডভার্টাইজিংঃ বাস্টেডটিজ নির্ভর করে ট্রেডিশন্যাল এডভার্টাইজিং এর উপর যার এড প্লেসিং করা হয় কলেজহিউমোর সাইটে। বাস্টেডটিজ ও কলেজহিউমোর এর মাঝে সেইম অডিয়েন্সদের মাঝে সিমিলার কন্টেন্ট শেয়ার করা হয়ে থাকে, এই পদক্ষেপটি দুর্দান্তভাবে কাজ করেছে।
  • অরিজিনাল্যাটিঃ যদিও বাস্টেডটিজ ডিজাইনগুলো মাঝে মাঝে ভ্রু উচু করে তুলতে পারে (এটি ১৮-২৮ বছরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে), তবুও ব্র্যান্ডটি হাস্যকর এবং অরিজিনাল থাকার এফোর্ট চালিয়ে যায়। যদি বাস্টেডটিজ অন্য সকলের মতো শার্ট অফার করা শুরু করে তবে এর কাস্টমারদের ফিরে আসার জন্য কিছুটা ইন্টারেস্টও থাকবে না।

৪. লাইফ ইজ গুড

অরিজিনাল ড্রয়িং অফ জেক ফ্রম এপ্রিল ১৯৯৪ (লেফট) অ্যান্ড জেক অন এ ট-শার্ট ২০১৭(রাইট)

১৯৯৪ সালে ৭৮ ডলার এবং ৪৮ টি টি-শার্ট দিয়ে জ্যাক নামের একটি স্টিক-ফিগারের সাথে বার্ট এবং জন জ্যাকবস ভাইয়েরা যখন লাইফ ইজ গুড ব্র্যান্ড শুরু করেছিলেন তখন তারা কখনই অনুমান করতে পারেনি যে তারা ১০০ মিলিয়ন ডলারের বিজনেস শুরু করছেন। আজ, লাইফ ইজ গুড মার্চেন্ডাইজ ৩০টি দেশের ৪,৫০০ এরচেয়ে বেশি দোকানে পাওয়া যাচ্ছে তবে ভাইরা কী করছে না তা শুনে আপনি অবাক হয়ে যেতে পারেন।

এডভার্টাইজিং।

পরিবর্তে, তাদের এপ্রোচ হাইপি এক্সপ্রেশনে সংক্ষিপ্ত করা যেতে পারেঃ “spreading good vibes.”

পূর্বের বছরগুলোতে ভাইদের খুব আশাবাদই মূলত ভাসিয়ে রেখেছিল তারা জিনিসপত্র হকার করে বেড়াতো ও  উত্তর-পূর্ব উপকূলের নিচের দিকে থাকতো, পিবি ও জে স্যান্ডউইচে উপর বেঁচে ছিল এবং তারা ভ্যানে বসবাস করতো। বিশেষকরে একটি আনসাকসেসফুল ট্রিপের পর, তখন তার ভাইয়েরা বিতর্ক করেছিল যে তাদের এই সমস্ত কিছু ছেড়ে দেওয়া উচিত এবং সত্যিকারের চাকরি নেয়া উচিত। আর এই ডিসকাশন লাইফ ইজ গুড কোম্পানিকে একটি আইডিয়া স্পার্ক করে উঠে।

ট্রেডিশনাল  এডভার্টাইজিং এর উপর নির্ভর না করার সিদ্ধান্ত নিয়ে, ভাইয়েরা বিভিন্ন উপায়ে নির্ভর করেছিলেনঃ

  • চ্যারিটিঃ চ্যারিটির জন্য ম্যানি রাইজিং তাদের গ্যারেন্টিড ব্র্যান্ড এওয়্যারনেসের কারন। প্রত্যেকের মধ্যে বিদ্যমান কনভিকশন এর সাথে লাইফ গুড ব্র্যান্ড সারিবদ্ধ করার মাধ্যমে, এটি ব্র্যান্ডকে সাকসিড হবার সম্ভাবনাকে এক্সপান্ড করে না, বরং ভাল করার জন্যও অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে।
  • ওয়ার্ড-অফ-মাউথঃ লাইফ ইজ গুড তাদের প্রতিটি পারচেজের একটি অংশকে কারণ হিসাবে দান করে, প্রতিটি পারচেজ এর সম্মানের জন্য ছোট্ট এই ব্যাজ হিসেবে ফীল করে তারা। ফ্যানসরা গর্বের সাথে লাইফ ইজ গুড ব্র্যান্ডটি সর্বত্র তাদের বন্ধু এবং ফ্যামিলির কাছে চলার এডভারটাইজ হিসাবে প্রকাশ করে থাকে। অতিরিক্তভাবে, ব্র্যান্ডটি এমনভাবে কারণ দেয় যাতে সমস্ত অংশগ্রহণকারীদের সমর্থকদের পার্টিসিপেট করতে দেয়- এখন যারা লাইফ ইজ গুড সম্পর্কে জানেন না তারা অবশ্যই এখন এটি করে থাকবেন।
  • কোলাবোরেশনঃ লাইফ ইজ গুড এর পিছনে শক্তিশালী মেসেজটি অনেক ইনফ্লুয়েন্সারকে আকর্ষণ করেছে, ব্র্যান্ডটি এমপ্লিফাই করার আরও বেশি অপর্চুনিটি তৈরি হয়েছে।

৫. উগ মঙ্ক

উগ মঙ্ক এর ফার্স্ট এনিভার্সারি টি-শার্ট (লেফট) উগ মঙ্ক স্প্রিং ২০১৭ রিপ্লে এফেক্ট টি-শার্ট (রাইট)

মাত্র ৪টি ডিজাইন এবং ২০০টি মোট শার্ট দিয়ে ২০০৮ এর আগস্টে উগমঙ্ক চালু করার পরে প্রতিষ্ঠাতা জেফ শেল্ডনের জন্য জিনিস গুলো দ্রুত আগাচ্ছিল। ২ বছরের মধ্যে, ফ্লেল্ডিং ক্লথ বিজনেস একটি সাইড  প্রজেক্ট থেকে ফুল টাইম অপারেশনে গ্রো করে।

উগ মঙ্ক প্রকাশ্যে স্বীকার করেছেন যে তারা ট্রেডিশনাল এডভার্টাইজিং এর উপর খুব বেশি নির্ভর করে না। তাদের সাফল্যের জন্য বিভিন্ন কারণ দায়ী করা যেতে পারেঃ

  • ওয়ার্ড-অফ-মাউথঃ শেল্ডন তার ফ্যানবেসের সাথে কমিউনিকেট করতে একটি ওপেন লাইন কমিউনিকেশন মেইন্টেইন রাখে এবং উগমঙ্ক সম্পর্কে এই শব্দটি ছড়িয়ে দিতে অর্গানিক ইউজার দ্বারা জেনেরেটেড কন্টেন্ট এর উপর নির্ভর করে। রেজাল্ট কী? উগ মঙ্ক মার্চেন্ডাইজ ৬২টি বিভিন্ন দেশে পা রেখেছে।
  • ইউনিকঃ শেলডন যখন উগমঙ্কের জন্য ফার্স্ট ডিজাইন আঁকেন, তিনি জানতেন যে তিনি সিমপ্লিসিটি চান – ২০০৮ সালে মেইনস্ট্রীম টি-শার্ট ডিজাইনের সাথে অস্তিত্ব নেই এমন কিছু। সেই সময়ে, ওয়াইল্ডলি ডিজাইন করা টি-শার্টের ট্রেন্ড ছিল। উগমঙ্ক বোল্ড কালার, টাইপোগ্রাফি এবং ক্লেভার কনসেপ্টেরে মাধ্যমে বুদ্ধি এবং ব্যক্তিত্ব প্রকাশ করতে বেছে নিয়েছিল। যা হিট করেছিল।
  • চ্যারিটিঃ আমরা যদি লাইফ ইজ গুড কোম্পানি থেকে কিছু শিখে থাকি, তবে লোকেরা কোন কারণ এ একটি ব্র্যান্ডের পিছনে দাঁড়াবে। উগমঙ্ক এখানেও ভিন্ন নয়। প্রতি হলিডে সিজনে, ক্ষুধার্ত বাচ্চাদের খাওয়ানোর জন্য রাইস বোলের সাথে এই ব্র্যান্ড অংশীদার।

অনন্য মেনশন: অ্যানিম্যাল হার্ট এপারেল

গিয়ারলঞ্চে, আমরা সর্বদা ইকমার্স স্পেসে উল্লেখযোগ্য নতুনদের জন্য নজর রাখছি। অ্যানিমাল হার্ট এপারেল রিসেন্টলি সবার নজর কেড়েছে, আমরা উপরে উল্লেখিত একটি টেকনিক কম্বিনেশন ইউজিং করতে বলা হয়েছে সাকসেস এর জন্য।

  • চ্যারিটি  অ্যানিম্যাল হার্ট এপারেল প্রতিটি অর্ডার থেকে প্রাপ্ত অর্থের ২৫% একটি নন-প্রফিট অ্যানিম্যাল শেল্টার বা রেসকিউ করতে ডোনেট করে।
  • ওয়ার্ড-অফ-মাউথঃ  অ্যানিম্যাল হার্ট অ্যাপারেল সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাক্টিভলি পার্টিসিপেট করে, তবে ইউজার জেনারেটেড কন্টেন্ট এর উপর (সেলফি, পেট সেলফি, পেট এর সাথে সেলফি ইত্যাদির) মাধ্যমে ফ্যান পার্টিসিপেন্সকে প্রো এক্টিভলি এঙ্কারেজ দেয়। এই ধরণের কন্টেন্ট কেবল তাদের প্রোডাক্টের টেস্টামেন্ট হিসাবে কাজ করে না এমনকি ব্র্যান্ডের জন্য মার্কেটিংকরায় যেহেতু কন্টেন্ট অ্যানিম্যাল হার্টের এক্সজিস্টিং ফ্যানদের ছাড়িয়ে যায়।

আপনার নিজস্ব ব্র্যান্ড চালু করতে ইন্সপায়ার্ড? গিয়ার লঞ্চের সাথে সহজ উপায়ে শুরু করুন

Subscribe To Our Newsletter

Get updates and learn from the best

More To Explore

HIRE A DESIGNER

হায়ার এ ডিজাইনার আপনি ডিজাইনার’স ব্লকের কোনও সমস্যায় ভুগছেন বা কোনও নির্দিষ্ট কাজের সাথে ওভারহোয়েলমেড  ফিল করছেন, ভুলে যাবেন না যে আপনি সারা বিশ্বজুড়ে ডিজাইনারদের

SUPERCHARGE YOUR SHOPIFY STORE

আপনার শপিফাই স্টোরটিকে সুপারচার্জ করুন গিয়ারলঞ্চ অ্যাপ্ এড করুন এবং একটি ই-কমার্স বিজনেস পরিচালনার জন্য আপনার প্রয়োজনীয় সব কিছুর অ্যাক্সেস দিন  — হাই কোয়ালিটি পিওডি