GETTING STARTED WITH GOOGLE SHOPPING

Share This Post

Share on facebook
Share on linkedin
Share on twitter
Share on email

শুরু করুন গুগল শপিংয়ের সাথে

গত সপ্তাহে, আমরা গুগল শপিং কী এবং কীভাবে এটি কাজ করে তা আমরা কভার করেছি। এটি ইকমার্স ব্যবসায়ের একটি শক্তিশালী টুলস এবং আপনাকে ডেটা- ড্রাইভেন সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে। এই সপ্তাহে আমরা কভার করবো কিভাবে আপনি গুগল অ্যাডস অপ্টিমাইজ করে সফল হতে পারবেন। মনে রাখতে হবে বর্তমানে ৯০+ দেশে শপিং এডস এভেইল্যাবল যার মাধ্যমে আপনি আপনার প্রোডাক্টগুলো বিশ্বব্যাপী সেল করতে পারবেন।

গুগল অ্যাডওয়ার্ডস সেট আপ করুন

গুগল শপিং শুরু করার আগে কিছু বিষয় কনফার্ম হয়ে নিতে হবে যে , আপনার নিজের একটি গুগল অ্যাকাউন্ট এবং গুগল এনালিটিক্স এর জন্যে এর পরিপূর্ণ সেটআপ রয়েছে। আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্ট সেট আপ হওয়ার পরে আপনার গুগল এডস এ চলে যান এবং পরবর্তী ধাপগুলো ফলো করুন। গুগল এডস এর জন্যে একটি ভিন্ন জিমেইল একাউন্ট ইউজ করা উত্তম এতে করে আপনার বাক্তিগত জিমেইল অ্যাড্রেস অনেক বেশি নোটিফিকেশন মুক্ত রাখা যাবে।

আপনার মার্কেটিং টীম এ যদি আরো মেম্বার থেকে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনি তাদের আপনার অ্যাডওয়ার্ড অ্যাকাউন্টে অ্যাক্সেসও দিতে পারেন। আপনার গুগল এডস একাউন্ট এ আপনি চাইলেই আপনার বাজেট, বিডস, বিভিন্ন ধরণের সেটিংস নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন এবং আপনার এডস এর বেস্ট পারফর্মেন্স এর জন্যে অপ্টিমাইজ করার সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রন পাবেন।

গুগল মার্চেন্ট একাউন্ট এর জন্যে সাইন আপ করুন

আপনার অ্যাডওয়ার্ড অ্যাকাউন্ট সেট আপ করার পরেই আপনাকে গুগল মার্চেন্ট একাউন্ট সেটআপ করে নিতে হবে। এবার এখানেই আপনি আপনার প্রোডাক্ট ফিড তৈরি করবেন এবং আপনার প্রতিটি প্রোডাক্ট এর ডিটেলস অ্যাড করবেন।

শুরু করতে আপনার প্রয়োজন হবে –

  • আপনার ওয়েবসাইট ইউআরএল কনফার্ম করুন। 
  • আপনার মার্চেন্ট সেন্টার এর সাথে গুগল এডওয়ার্ডস লিংক করুন। 
  • আপনার প্রোডাক্টগুলো সম্পর্কে সমস্ত-তথ্য সহ আপনাকে একটি ফিড তৈরি এবং আপলোড করতে হবে। বিষয়টি সম্পর্কে আপনি আরও জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন,

আপনি যদি গুগল শপিংয়ে সম্পূর্ণ নতুন হয়ে থাকেন,তাহলে প্রকাশিত হবে না এমন একটি টেস্ট ফিড স্থাপনের কথা চিন্তা করতে পারেন যাতে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন এটি কীভাবে কাজ করে এবং তা আপনার প্রথম অ্যাড লাইভ হওয়ার আগেই। এখন আপনি যদি সবকিছু সেটিং এর বিষয় নিয়ে বেশ চিন্তিত ফিল করে থাকেন তাহলে গুগল এর বেশকিছু রিসোর্স আছে যা আপনাকে ধাপে ধাপে সহযোগিতা করবে।

সফলতার জন্য অপ্টিমাইজ করুন!

হাই কনভার্সেশন রেট এচিভ করার ইচ্ছে থাকলে অবশ্যই আপনাকে গুগল শপিং অপ্টিমাইজ করতে হবে। আপনার প্রোডাক্ট ইমেজে প্রোভাইডেড ডাটা গুলোর কোয়ালিটি এবং পরিপূর্ণতা গুগল সবসময় ফলোআপ করে তাই প্রোডাক্ট ইমেজ ডাটা দেয়ার ক্ষেত্রে সময় নেয়া বা সময় নিয়ে ভেবে পাবলিশ করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। গুগল শপিংয়ের এচিভমেন্ট এর ক্ষেত্রে এই প্রোডাক্ট আইডেনটিফায়ার্স গুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ, এর মধ্যে কয়েকটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। 

  • Title – Try to use all 70 characters allowed
  • Image format – Google prefers JPG, BMP, GIF, PNG, or TIF
  • Correct and current product information – For example, pricing and availability 

একটি ফুল লিস্ট অফ প্রোডাক্ট ডেটা অন্তর্ভুক্ত করার জন্য, এখানে ক্লিক করুন। যতটা সম্ভব প্রোডাক্ট ইনফরমেশন ইনক্লুড করার চেষ্টা করতে হবে নাহলে আপনার আপনার প্রোডাক্টগুলো গুগল সার্চ রেজাল্ট এ নাও দেখাতে পারে। 

কীওয়ার্ড রিসার্চ এর উপর টাইম ইনভেস্ট এর কথা অবশ্যই ভোলা যাবে না। সঠিক কীওয়ার্ড ব্যবহার আপনাকে টাইটেল ইনফরমেশন,প্রোডাক্ট ক্যাটাগরি, প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন এবং আরও অনেক কিছু সাজাতে সহযোগিতা করবে। 

মার্চেন্ট একাউন্ট সেটাপ করা সম্পূর্ণ ফ্রি তবে যখন আপনি এডস রান করতে যাবেন তখন অবশ্যই একটি বাজেট সেটআপ করতে হবে। ডাটা কালেক্ট করার পাশাপাশি সঠিক অডিয়েন্স বিল্ড করার জন্য বিড সামঞ্জস্য করতে পারবেন।তাই সরাসরি মার্কেটিং এফোর্ট দেয়া শুরু করার আগে একটি সম্পূর্ণ মার্কেটিং স্ট্রেটির্জি তৈরি করাটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। ইকমার্স বিজনেস অনেক বেশি কম্পেটেটিভ তাই আপনার এবিলিটি ইম্প্রোভ করার পাশাপাশি সঠিক অডিয়েন্স বিল্ড করার জন্যে গুগল শপিং অনেক বেশি কার্যকরী।

Subscribe To Our Newsletter

Get updates and learn from the best

More To Explore

10 TIPS FOR NAMING YOUR BLOG OR BUSINESS

আপনার ব্লগ বা বিজনেস নেমিং এর জন্য ১০ টিপস যখন কোনো বিজনেস বা ব্লগ শুরু করা হয় তখন অন্ট্রোপ্রেনারদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে সিদ্ধান্ত নিতে

8 EASY TIPS FOR WORKING FROM HOME SUCCESSFULLY

সফলভাবে বাড়ি থেকে কাজ করার ৮ টি সহজ টিপস ২০২০ সালে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড গ্লোবাল প্যানডেমিক এর কারণে রিমোট ওয়ার্কারদের পরিমাণে ইনক্রিজ হয়েছে এবং অফিসে কাজ