5 WAYS TO INCREASE YOUR STORE’S AVERAGE ORDER VALUE

Share This Post

Share on facebook
Share on linkedin
Share on twitter
Share on email

আপনার স্টোরের  অ্যাভারেজ অর্ডার ভ্যালু বাড়ানোর ৫ টি উপায়

একটা ইকমার্স বিজনেস চালানো রোলার কষ্টারের রাইডের মত মনে হতে পারে।  আপনার নতুন প্রোডাক্ট লাইন একবার মনে হবে অনেক বেশি সেল হচ্ছে আবার কিছু সময়ের মধ্যে তা পুরো ফ্ল্যাট হয়ে যেতে পারে।  একটি উপায় হলো আপনার স্টোরে বেশি করে ট্রাফিক বাড়ানো, এইটা আশা করে যে তারা কনভার্ট হয়ে যাবে , কিন্তু এইটি ব্যয়বহুল এবং সময়সাপেক্ষ ব্যাপার (বিশেষ করে নতুন মার্চেণ্টসদের জন্য) ।

অন্য উপায় হচ্ছে আপনার শপার এবং কাস্টমার বাড়ানো।  এটি করতে অবশ্যই কম খরচ হবে এবং আপনার কাস্টমারকে আপনার ব্র্যান্ড এর সাথে পরিচিত করে তুলবে যা সম্পর্কে তারা অলরেডি জানেন, তারা হচ্ছে সেই সব ক্রাউড যাদের আপনার প্রোডাক্টের ভ্যালু সম্পর্কে সহজেই কনভিন্স করতে পারবেন। 

অন্য একটি উপায় হলো আপনার বেজকে মাক্সিমাইজ করা অ্যাভারেজ অর্ডার ভ্যালু ইনক্রিস করার জন্য।  আপনার স্টোরের প্রতি  ট্রানজেকশনের অ্যাভারেজ এমাউন্ট হলো  অ্যাভারেজ অর্ডার ভ্যালু (এওভি) ।  আপনি আপনার অ্যাভারেজ অর্ডার ভ্যালু ক্যালকুলেট করতে পারবেন টোটাল রেভিনিউকে নাম্বার অফ অর্ডার দিয়ে ভাগ দিয়ে।  ডাবল চেক করেন যেন আপনি একই সময়ের সব নাম্বার ইউজ করছেন। 

এওভি বাড়ানোর জন্য , আপনাকে আপনার কাস্টমারদের এনকারেজ করতে হবে বেশি করে প্রোডাক্ট কিনার জন্য বা অনেক দামি প্রোডাক্ট কিনার জন্য(বা দুটোই)। নিচে ৫টি প্র্যাকটিক্যাল স্টেপ দেখানো হয়েছে যা দিয়ে আপনি এটি করতে পারবেন।

১. ডিসকাউন্ট মিনিমাম কোয়ালিফিকেশনস

ডিসকাউন্ট  সাধারণত উত্তেজনা নিয়ে আসে যা  বিভিন্ন বায়ারদের এনকারেজ করে। ফর এক্সাম্পল , প্রোডাক্ট এক্সক্লুশনস বায়ারদের এনকারেজ করে স্পেসিফিক আইটেমের দিকে এবং টাইম লিমিট সেন্স অফ আর্জেন্সি ক্রিয়েট করে বায়ারদের হেজিটেশন ঝেড়ে ফেলার জন্য।

 ডিসকাউন্ট ক্রিয়েট করলে  তা আপনার অ্যাভারেজ অর্ডার বাড়াতে একটু হলেও হেল্প করে। ডিসকাউন্ট এর জন্য কোয়ালিফাই হতে শপারকে এ্যাট লিস্ট এক্স এমাউন্ট এর পারচেজ করতে হবে। এই ডিসকাউন্ট  ফ্রি শিপিং এর মাধ্যমে বা তাদের সম্পূর্ণ পারচেজ থেকে কিছু অফ দিয়ে অফার করতে পারেন।

২. গিভ স্টোর ক্রেডিট

স্টোর ক্রেডিট অনেক সিম্পল ডিসকাউন্ট এর মতো না। কোনো টাইম লিমিট দেয়া থাকলে শপাররা তাদের ক্রেডিট যে আইটেম তাদের পছন্দ সেটির ওপর স্পেন্ড করতে পারেন। স্টোরে ক্রেডিট এর কারণে কাস্টমাররা আবার ফিরে আসেন এবং যে আইটেম গুলো তারা সাধারণত কিনেন না সেই আইটেম গুলোতেও স্পেন্ড করেন শুধু মাত্র দামের কারণে। 

স্টোরে ক্রেডিট দেয়া অনেক সহজ কিন্তু আপনাকে এইটা ইনশিউর করতে হবে যেন প্রোডাক্ট এর দাম এত বেশি না হয় যেটা প্রফিট করতে বাধা দেয়। একটি উদাহরণ হলো , আপনার স্টোরের  প্রতিটি প্রোডাক্ট যদি $২৫ বা তার থেকে বেশি হয় তাহলে আপনি $৫ আপনার কাস্টমার কে গিফট করতে পারেন যারা  আপনার কাছ থেকে আগেও কিছু কিনেছেন।

৩. রেকমেন্ড প্রোডাক্টস

কিছু মাত্র অনলাইন সেলাররা অনেক প্রফিট করেন শুধু কিছু ডিসাইন দিয়ে। কিন্তু একজন অনলাইন সেলারের কাছে ডজন ডজন ( ইভেন হান্ড্রেডস) ভিন্ন ডিজাইন থাকবে এইটা আশা করা হয়। আশ্চর্য ভাবে এইটা একটা ফ্যাক্টর  যার কারণে সেল কমে যায়। 

আপনার কাস্টমারকে অনেক ভ্যারাইটির প্রোডাক্ট দিলে তারা চয়েস করার ফ্রিডম পান কিন্তু এইটা যারা একটা স্পেসিফিক জিনিস চাচ্ছেন সেইটা সার্চ করার ক্ষেত্রে প্রবলেম ক্রিয়েট করে।  আবার এমনও হতে পারে যে কেউ প্রথম যে প্রোডাক্ট দেখলেন তা তার ক্রাইটেরিয়ার সাথে মিলে গেছে এবং পারচেজ করে নিয়েছেন আর ব্রাউস করার কোনো প্রয়োজন মনে করেন নি। 

এইখানে প্রোডাক্ট রেকমেন্ডেশন একটি বড় রোল প্লে করতে পারে।  তারা কাস্টমারদের অ্যাডিশনাল অপর্চুনিটি দিতে পারেন যে প্রোডাক্ট গুলো রিলেভেন্ট এবং পপুলার  সেগুলো দেখানোর মাধ্যমে। 

এইখানে একটা এক্সাম্পল দেয়া হলো প্রোডাক্ট রেকমেন্ডেশন  দেখতে কেমন হয় গিয়ারলঞ্চ প্লাটফর্মে।

৪.  আপসেল বা ক্রস-সেল

আপসেল এবং ক্রস-সেল এর মধ্যে সিমলারিটি আছে এইটি যখন  শপারদের প্রোডাক্ট রেকমেন্ড করে তখন তাদের শপ করার জন্য আরেকটি অপর্চুনিটি দেয় রিলেভেন্ট প্রোডাক্ট রেকমেন্ড করে। কিন্তু এগুলো একটু ডিফরেন্ট কারণ সাজেশন গুলো টেইলর করা হয় কাস্টমারের কার্ট এর আইটেমের ওপর ডিপেন্ড করে। 

ক্রস-সেল এ কাস্টমাররা রেকমেন্ডেশন পায় কমপ্লিমেন্টারি প্রোডাক্টের।  একটি উদাহরণ হলো, একজন শপার, যে তার কার্ট এ শ্যাম্পু নিয়েছেন সে কন্ডিশনার বা বডি-ওয়াস রেকমেন্ডেশন পেতে পারেন।

আপ-সেল এ কাস্টমাররা রেকমেন্ডেশন পায় আপগ্রেড বা হায়ার কোয়ালিটি প্রোডাক্টের। উদাহরণ স্বরূপ , একজন শপার যে ১১ আউন্স মগ কিনেছেন সে ১২ আউন্স মগ এর রেকমেন্ডেশন পেতে পারেন। 

আপসেলিং এর আরো টিপস পেতে আমাদের পোস্টটি চেক আউট করুন, “কিভাবে আপসেল করা যায় কাস্টমারদের এবং কাস্টমারদের লাইফ টাইম ভ্যালু ইন্ক্রিস করা যায় “।

৫. লয়াল্টি প্রোগ্রাম লঞ্চ করা

লয়াল্টি প্রোগ্রাম আপনার কাস্টমারদের  সাথে আপনার রিলেশনশিপ বিল্ড করতে হেল্প করে। লয়্যালিটি প্রোগ্রামের আরেকটি বেনিফিট হলো এইটা লয়্যালিটি বেনিফিট পাওয়ার জন্য কাস্টমারদের এনকারেজ করে আরো বেশি প্রোডাক্ট আপনার কাছ থেকে কিনার জন্য। 

যদি আপনার স্টোরের বয়স মাত্র কিছুদিন হয় তাহলে লয়্যালিটি প্রোগ্রাম আপনাকে অনেক উপকার করবে। আপনার প্রফিট খুব বেশি কাট না করে আপনার কাস্টমারদের পুরষ্কার দেয়ার জন্য একটি এমাউন্ট ঠিক করুন। এই নম্বর তা লাইফ টাইম পারচেজ নম্বর বা তারা যতবার আপনার সাথে পারচেজ করেছেন তার নম্বর হতে পারে। 

গিয়ারলঞ্চ সেলারদের  কাস্টমার ডাটা ডাউনলোড করতে দেয় তাই আপনি এই ডাটা এর এক্সেস খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। একবার আপনি এই ডাটা পেয়ে গেলে আপনার এক্সেল শিটে প্রতিদিন এর নম্বর গুলো শর্ট করে নিন  এবং তাদের রিওয়ার্ড পাঠিয়ে দিন, এইটাই আপনার লয়াল্টি প্রোগ্রাম এর শুরু !

 এটি তৈরি চালিয়ে যাওয়ার জন্য, নিশ্চিত করুন যে আপনি নিয়মিত আপনার কাস্টমারদের সাথে কমিউনিকেট করছেন এবং তাদের পরবর্তী পুরস্কারের মাইলফলকে পৌঁছাতে উৎসাহিত করছেন।

Subscribe To Our Newsletter

Get updates and learn from the best

More To Explore

Monthly Live about Facebook Marketing

Here we covered how to do Facebook marketing in effective ways which will drive more traffics and how you can raise the possibility to increase

1000 T-shirt Mockup

এখানে আপনারা পাচ্ছেন ১০০০ টিশার্ট-এর ফ্রি মকআপ! আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো ডিজাইন নিয়ে কাজ করতে পারবেন একদম ফ্রি-তে। তাই দেরি না করে ডাউনলোড করে নিন