10 MISTAKES BEGINNERS MAKE WITH PRINT ON DEMAND

Share This Post

Share on facebook
Share on linkedin
Share on twitter
Share on email

১০ টি ভুল যা বিগেইনার করে প্রিন্ট অন ডিমান্ড এর ক্ষেত্রে

ইকমার্স এ প্রবেশ করা অনেক এক্সাইটিং এবং যদি আপনি সঠিক স্ট্র্যাটিজি ব্যবহার করতে পারেন তাহলে এইখানে লাভবান হওয়ার অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেসের সব থেকে ভালো বিষয় হলো আপনাকে ইনভেন্টরি নিয়ে কোনো চিন্তা করতে হবে না এবং প্রোডাক্ট স্টোরিং আর শিপিং এর জন্য যে অতিরিক্ত খরচ হয় সেটা নিয়েও ভাবার কোনো প্রয়োজন নেই।  ইকমার্স এর কোনো কোনো পার্ট অনেক সহজ মনে হলেও কিছু কিছু সাধারণ ভুল আছে যা অনেক নতুন ওনাররা করে থাকেন যদি তারা সাবধান না হন।

এইখানে শীর্ষ ১০ টি ভুল দেয়া হলো যা আমরা সচারচর প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেস ওনারদের করতে দেখি।

১. অসম্ভব এক্সপেক্টেশনস থাকলে

যদিও প্রিন্ট ওন ডিমান্ডে রেভিনিউ করার অনেক স্বভাবনা রয়েছে কিন্তু অনেক নতুন বিজনেস ওনাররা বিজনেস শুরু করে দেন এবং এক্সপেক্ট করেন প্রথম দিন থেকেই সেল বেড়ে সব থেকে উঁচু জায়গায় পৌঁছে যাবেন। বাস্তব বিজনেস লক্ষ্য এবং একটি ভালো আইডিয়া ছাড়াও কিছু বেশি নিয়ে বিজনেস স্টার্ট করা হলো অনলাইন সেলস ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো করার উপায়।  যেটা আমাদের দুই নম্বর ভুলের দিকে নিয়ে যায়।

২. আগে থেকে কোনো বিজনেস প্ল্যান ক্রিয়েট না করা

অনেক সেলাররা প্রিন্ট ওন ডিমান্ড বিজনেস শুরু করেন কারণ তাদের কাছে মজাদার আইডিয়া আছে এবং তারা দেখতে চান অনলাইন থেকে কিছু এক্সট্রা মানি আয় করতে পারেন কিনা। কিন্তু আপনি যদি আপনার বিজনেসকে সিরিয়াসলি না নেন এবং আপনার লং টার্ম বা শর্ট টার্ম যেই গোল ই হোক না কেন সেইটার জন্য বিজনেস প্ল্যান না করলে হয়তো আপনি কোনোদিন আপনার ভালো আইডিয়া টা কাজেই লাগাতে পারবেন না। 

একটি বিজনেস প্ল্যান এর সচরাচর থাকে :

  • একটি এক্সিকিউটিভ সামারি 
  • কোম্পানির ওভারভিউ 
  • আপনার প্রোডাক্টের ইনফরমেশন 
  • মার্কেট এনালাইসিস এবং মার্কেটিং প্ল্যান 
  • অর্গানাইজেশন এবং ম্যানেজমেন্ট টিম 
  • ফিনান্সিয়াল প্ল্যান এবং প্রোজেকশন্স 

সঠিক জায়গায় সঠিক জিনিস বসিয়ে আপনি আপনার বিজনেসকে অনেক দূর এগিয়ে নিতে পারেন।

৩. আপনি আপনার রিসার্চ করেননি

সাফল্য পাওয়ার সব থেকে ভালো উপায় হলো একটু রিসার্চ করে তারপর নিজের বিজনেস শুরু করা। আপনার ডিজাইন হয়তোবা অনেক সুন্দর কিন্তু আপনি কি তাই অফার করছেন যা কাস্টমাররা খুঁজছেন? আপনাকে আপনার টার্গেট নিশ সম্পর্কে জানতে হবে এবং মার্কেটের সাথের গ্যেপটাও খুঁজে বের করতে হবে।  এমন সব পদ্ধতি বের করুন যা কাস্টমাররা আগে কখনো দেখেন নি। তারপর অন্য অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলি যে সমস্যা গুলোর কোনো সমাধান দেন নি সেগুলো সমাধান কিভাবে করবেন তা ভেবে দেখুন। আপনার আইডিয়াল কাস্টমার  খুঁজে বের করুন এবং আপনার ক্রেতা সিলেক্ট করুন যেন আপনি আপনার নিজের ডিজাইন এবং মার্কেট প্ল্যান ক্রিয়েট করতে পারেন, আপনি জানেন আপনি কাদের টার্গেট করছেন তারা কি খুঁজছেন এবং কি ধরণের মেসেজ দিলে তারা উৎসাহ ফীল করবেন।

৪. ডিজাইন বোরিং এবং জেনেরিক

যদি আপনার ডিজাইন অনেক বেশি বোরিং এবং জেনেরিক থাকে তাহলে এগুলো আসলে বেশি সেল নিয়ে আসতে পারে না।  অনলাইনে কাস্টমারদের জন্য এত বেশি কালেকশন আছে সিলেক্ট করার যে আপনাকে কিছু ভিন্ন জিনিস উপস্থাপন করতে হবে ভিড়ের মধ্যে দেখার জন্য।  যদি আপনি ডিজাইনার না হন তাহলে বাজেট রেখে দিন এবং তা একজন ডিজাইনার হায়ার করতে ইনভেস্ট করুন যে ইউনিক ডিজাইন করবে যা টার্গেট অডিয়েন্সের কাছে ভালো লাগতে পারে।

৫. শুধু টি-শার্ট সেল করা

প্রিন্ট অন ডিমান্ড আর সেই বিজনেস নেই যা প্রাথমিকভাবে পোশাক পরিবেশন করতো এবং স্পেসিফিক্যালি  টি-শার্টগুলি। অনেক সেলাররা শুধু এক রকম ভাবেই বিজনেস করে যাচ্ছেন অন্য কোন দিকের কথা ভাবছেনও না যার কারণে অনেক বেশি প্রোডাক্ট অফারিং করতে পারছেন না।  গিয়ারলঞ্চ প্লাটফর্ম এর সাহায্যে আপনি আপনার অনেক ভিন্ন টাইপ এর প্রোডাক্ট সেল করতে পারেন এবং আগের থেকে অনেক বেশি বড় অডিয়েন্স দের এট্রাক্ট করতে পারবেন। আবার রিসার্চ করুন এবং দেখুন আপনার অডিয়েন্সরা কি বেডরুম ডেকোর বা অন্য হোম ডেকোর আইটেম কিনতে ইন্টারেস্টেড নাকি। বা এইটাও হতে পারে যে তারা ড্রিংকওয়ার বা জুয়েলারীতে ইন্টারেস্টেড। আমাদের ভিন্ন ক্যাটাগরি চেক করুন যেটা আপনার জন্য বেশি উপযোগী ঐটা খুঁজে বের করতে।

৬. কাস্টমার রিভিউ কালেক্ট না করা

প্রথমে কাস্টমার রিভিউ পাওয়া অনেক কষ্টের কিন্তু এইটা লং টার্ম সাফল্যের চাবি। অপরিচিত ইকমার্স বিজনেস থেকে কেনার আগে কাস্টমাররা রিভিউ চান এবং রেটিং খুজেঁন।  কাস্টমাররা আপনার স্টোরের  রিভিউ দেখার সাথে সাথে আরো দেখে :

  • ওভারঅল স্যাটিসফেকশন
  • শিপিং টাইম 
  • কাস্টমার সার্ভিস
  • প্রোডাক্ট কোয়ালিটি 

আপনার প্রথম কিছু কাস্টমারদের কাছে রিভিউ দেয়ার জন্য অনুরোধ করুন। আপনি তাদের ডিসকাউন্ট অফার করতে পারেন তাদের পরবর্তী পার্চেজে ইমেইল মার্কেটিং বা সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে। আপনার কাস্টমারদের সাথে ট্রাস্ট বিল্ড করলে আপনি সহজেই সাফল্য পেতে পারেন যেটা না করে অনেকেই ভুল করেন।

৭. হলিডের জন্য কোনো প্রস্তুতি না নেয়া

বড় হলিডের জন্য আগে থেকে কোনো প্রস্তুতি না নিলে বড় রকমের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে প্রিন্ট অন ডিমান্ড বিজনেসের ক্ষেত্রে।  অনেক নতুন সেলাররা আগে থেকে কোনো প্ল্যান করে না এবং অনেক দেরি করে ফেলে ক্যাম্পেইন মার্কেটিং বা হলিডে রিলেটেড আইটেমের মার্কেটিং এর জন্য। আপনার হলিডে ক্যাম্পেইন হলিডে আসার প্রায় দুই মাস আগ থেকে রেডি হতে হয়। এইটা কাস্টমারদের অনেক টাইম দেয় অর্ডার ,শিপিং এবং প্রোডাক্ট রিসিভ করার জন্য টার্গেটেড হলিডের আগে।

৮. ভালো কাস্টমার সার্ভিস না দেয়া

কাস্টমারটা তাদের পছন্দের নতুন কোনো ব্যান্ড বা প্রোডাক্ট নিয়ে আলোচনা করতে ভালোবাসে। কিন্তু তাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে কমপ্লেইন করার সম্ভাবনা বেশি থাকে যদি তারা খুশি না হন। মেক শিউর করবেন যেন আপনি ভালো সার্ভিস প্রোভাইড করতে পারেন (বা গিয়ারলঞ্চ এর সাথে টীম আপ করুন এবং কাস্টমার সার্ভিস বিল্ট -ইন করুন) যেটা আপনার বিজনেসকে অনলাইনে দাঁড়াতে সাহায্য করবে। আপনার কাস্টমারকে খুশি রাখলে তা পরবর্তীতে আপনার জন্য অনেক ভিন্নতা এনে দিতে পারবে।

৯. কোনো মার্কেটিং প্ল্যান নেই

আপনার বিজনেস প্ল্যানের একটি অংশ হলো মার্কেটিং প্ল্যান ক্রিয়েট করা। অনেক বিজনেস ওনাররা এই প্রয়োজনীয় স্টেপ স্কিপ করে চোলে যান ,স্টোর সেট আপ করেন কিন্তু বুঝতে পারেন না কেন তাদের কোনো সেল হচ্ছে না। আপনার মার্কেটিং প্ল্যান এ ওভারঅল স্ট্র্যাটিজি , বাজেট, যে মার্কেটিং চ্যানেল গুলো টার্গেট করবেন সব ইনক্লুড থাকতে হবে। আপনি স্ট্রং কন্টেন্ট স্ট্র্যাটিজি ও আপনার বিজনেস এর জন্য চাবেন।  আপনার কনটেন্ট আপনাকে অনলাইনে র‌্যাঙ্ক করতে  এবং আপনার কাস্টমারদের  বিশ্বাস স্থাপন এবং ভ্যালু প্রোভাইড করতে হেল্প করবে।

১০. কনটেস্ট রান করা বা কোনো প্ল্যান ছাড়া ফ্রীবি দেয়া 

আপনার একটা মার্কেটিং প্ল্যান হতে পারে সোশ্যাল মিডিয়াতে কনটেস্ট রান করা বা ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে ব্র্যান্ড এ্যাওয়ারনেস ক্রিয়েট করা। এটি ফ্লপ হয়ে যাবে যদি আপনি প্রস্তুত না থাকেন এবং আপনার ভবিষ্যৎ কাস্টমারদের মাঝে খারাপ ইম্প্রেশন ফেলে দিতে পারে। 

কিছু জিনিস মাথায় রাখতে হবে আপনার ফার্স্ট কনটেস্ট রান করার আগে :

১. কনটেস্ট এবং এর রুল নিয়ে একদম পরিষ্কার থাকতে হবে। 

২. ব্লগার বা অন্য ইনফ্লুয়েন্সারদের সাথে পার্টনার শিপ করা। 

৩. ফলো আপ কনটেন্ট এবং সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের মাধ্যমে  প্রিপেয়ার থাকা। 

৪. অনেক বেশি গিভওয়েস , ফ্রীবিস বা কনটেস্ট রান না করা। 

অল্প প্ল্যানিং, কিছু রিসার্চ এবং আপনার বিজনেস এর কিছু ইম্পরট্যান্ট জিনিস ঠিক জায়গায় থাকলে আপনি অন্য সেলারদের মতো সাধারণ ভুল করা থেকে বিরত থাকবেন। 

সেলিং শুরু করতে রেডি ? গিয়ারলঞ্চ কে হেল্প করতে দিন !আপনি আপনার স্টোর অল্প সময় এর মধ্যে রেডি পেয়ে যাবেন !

Subscribe To Our Newsletter

Get updates and learn from the best

More To Explore

SUPERCHARGE YOUR SHOPIFY STORE

আপনার শপিফাই স্টোরটিকে সুপারচার্জ করুন গিয়ারলঞ্চ অ্যাপ্ এড করুন এবং একটি ই-কমার্স বিজনেস পরিচালনার জন্য আপনার প্রয়োজনীয় সব কিছুর অ্যাক্সেস দিন  — হাই কোয়ালিটি পিওডি

Baby Onesie

বেবি ওয়ানজি বেস কস্ট     প্রোডাক্ট ইনফরমেশন      আর্ট ওয়ার্ক এন্ড মকআপ     সাইজ গাইড  বেস কস্ট Tier Monthly Unit sale Price