“নিশের ছয় নয়” By Raz

মার্কেটে গেছেন জুতা কিনতে। কিন্তু কোনটা কিনবেন, কোন ব্রান্ডের কিনবেন, কোন মার্কেট থেকে কিনবেন এমনকি কত টাকায় কিনবেন সিদ্ধান্ত নিতে হিমসিম খেয়ে যাচ্ছেন। এটা স্বাভাবিক, এমনটা অনেকেরই হয়। কেউ কেউ আছেন যারা মার্কেটে গেলে যেটা চোখে পরে সেটাই পছন্দ করে ফেলেন, আবার কেউ আছেন এক মার্কেট থেকে আরেক মার্কেটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন কিন্তু কিচ্ছু পছন্দ করতে পারছেন না। অনেকেই আছেন যারা এইরকম সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগার চাইতে নিজের বউকে বা বোনকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিতে পারলেই হাফ ছেড়ে বাঁচেন।

শুধু টি-শার্ট মার্কেটারগণই নন, অন্য প্লাটফর্মে যারা অনলাইন মার্কেটিং এর সাথে জড়িত তারা প্রায় সকলেই শুরুতে নিশ সিলেক্ট করতে গিয়ে এইরকম জুতা কেনার মতো অবস্থার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। আপনি জিএল এর সাথে পড বিজনেসে জড়িত হয়েছেন বেশ কয়েকটি প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য, যদিও মূলত টি-শার্টকে প্রাধান্য দেয়া হয়। তো প্রথমে আপনার জানার বিষয় এই প্রোডাক্টগুলো কোথায় এবং কাদের কাছে বিক্রি করবেন। আপনাকে জানতে হবে- আপনার ডিজাইন করা একটি টি-শার্ট কোন ব্যক্তি কিনতে পারে অথবা আপনার ডিজাইন করা একটি মগ কোন ধরনের লাইফ স্টাইলের সাথে অভ্যস্ত ব্যক্তিরা কেনার আগ্রহ দেখাবে- এসবই রিসার্চের বিষয়। রিসার্চ নিয়ে কথা বলার জন্য গ্রুপে এক্সপার্টদের অনেক রিসোর্স পাবেন।

আমাদের গ্রুপেই অনেকে আছেন নিশ সিলেক্ট করার ব্যাপারে দিধায় ভুগছেন অথবা অনেক নিশের ডিজাইন থাকলেও কোনটি নিয়ে মার্কেটিং শুরু করবেন সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। আমি আপনাদের সাথে কিভাবে খুব সহজে নিশ খুজে বের করে ঐ নিশের অডিয়েন্সদের জন্য কিভাবে ডিজাইন ক্রিয়েট করা যায় এ বিষয়ে আলোচনা করবো।

প্রথমে আপনাকে মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে দিতে হবে প্রচলিত একটা ধারণা- ‘অমুক নিশে অডিয়েন্স বেশি, তমুক নিশে কম’। অডিয়েন্স এর বাংলা করলে দারায় ‘যে প্রাণি পড়তে পারে, শুনতে পারে এবং দেখতে পারে’ lol অর্থাৎ আপনার আমার মতোই দু পায়ের মানুষ। দুনিয়ার সব নিশেই কম বা বেশি অডিয়েন্স আছে। আপনি প্রতিটি নিশের অডিয়েন্সের কাছে সেল আশা করলেও কোনো নিশের প্রত্যেকটা পাবলিকের কাছে আপনার প্রোডাক্টটি সেল আশা করতে পারেন না। লাখ লাখ অডিয়েন্সকে টার্গেট করে আমরা সেল আশা করতে পারি খুব বেশি হলে 10-10k ইউনিট। সুতরাং আপনি যে নিশই সিলেক্ট করেন না কেনো আপনার কাঙ্খিত সেল উক্ত নিশেই সম্ভব। আপনি কিভাবে সঠিক ডিজাইন করে আপনার নিশের টার্গেটেড অডিয়েন্সের কাছে পৌছাবেন সেটা আলাদা বিষয়। মনে রাখবেন, আপনি যে বাজেটে ডিজাইন করছেন, যে বাজেটে মার্কেটিং করছেন সেটা US বা UK তে অবস্থান করে সম্ভব না। সুতরাং US বা UK এর অডিয়েন্স আপনার ডিজাইন করা প্রোডাক্টটি কেনার জন্য অপেক্ষা করছে।

নিশ এবং সাব নিশ খুজে বের করার পদ্ধতি :

আমি আপনাদের 10/5 টা ওয়ে না দেখিয়ে মাত্র একটা ওয়ে দেখাবো। এই লিংকে ক্লিক করুন- www.cafepress.com/+clothing লিংক দেখেই বুঝতে পেরেছেন আমি ক্যাফে প্রেসের কথা বলছি। ক্যাফেপ্রেস সাইটের বা দিকে SHOP BY INTEREST অর্থাৎ ক্যাটাগরি দেখতে পাবেন। ধরা যাক Hobbies এ ক্লিক করেছেন। বা দিকেই খেয়াল করুন Hobbies এর সাব নিশ গুলো দেখতে পাবেন। এবার Hobbies নিশটাকে সাব নিশে ন্যারো ডাউন করতে থাকুন। যেমন- Hobbies > Art > Drawing > Cartoon > Vintage Cartoon এইভাবে। ব্যস হয়ে গেলো নিশ সিলেকশন ।

নিশকে ন্যারো ডাউন করে সাব নিশে কনভার্টের প্রাকটিক্যাল উদাহরণ :

‘জিএল মাস্টারমাইন্ড গ্রুপে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোক টি-শার্ট বিজনেসের সাথে জড়িত।’

ধরুন আমি জিএল মাস্টারমাইন্ড গ্রুপের জন্য একটা টিশার্টের ডিজাইন করলাম।আমি যদি ডিজাইনে ম্যাসেজ দেই `I love my car, I've tee business'। কে কে কিনবে টিশার্টটা? সম্ভবত বেলাল ভাই ছাড়া আর কেউই না (বেলাল ভাইয়ের প্রাইভেট কার আছে কিনা আমি জানিনা)। অর্থাৎ গ্রুপে যাদের টি বিজনেস এবং কার দুটোই আছে শুধু তারাই এই ম্যাসেজের ডিজাইন করা টিশার্ট কিনবে।

টিশার্টের ম্যাসেজটার দিকে খেয়াল করুন, আমি তিনটা বিষয় কাভার করেছি। জিএল মাস্টারমাইন্ড গ্রুপের অডিয়েন্সকে টার্গেট করেছি এবং এখানে যারা টি বিজনেসের সাথে জড়িত + যাদের প্রাইভেট কার আছে তাদের জন্য ডিজাইন করেছি। এখানে টি বিজনেস ইন্টারসেক্ট করেছি প্রাইভেট কারের সাথে এবং অডিয়েন্স হিসেবে টার্গেট করেছি জিএল মাস্টারমাইন্ড গ্রুপের পিপলদেরকে।

উল্লেখ্য, টি বিজনেস কিন্তু মূলত ‘বিজনেস’ এর সাব নিশ। আবার টি বিজনেসেরও সাব....সাব...সাব...সাব..... নিশ আছে। যেমন- বেসিক টি বিজনেস, প্রিমিয়াম টি বিজনেস, ব্লাঙ্ক টি বিজনেস। এগুলোরও সাব নিশ আছে- বেসিক গিলডেন টি বিজনেস, প্রিমিয়াম ভি-নেক টি বিজনেস, ব্লাঙ্ক ওমেন টি বিজনেস ইত্যিাদি।

ডিজাইনের ম্যাসেজটাকে যদি সাব নিশে ন্যারো ডাউন করি কেমন দেখাবে- `I love my primo x2, I've premium tee business'

আপনি একটা নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির অডিয়েন্সকে টার্গেট করবেন এবং তাদের অন্তত ২টা ইন্টারেস্টের দিকে খেয়াল রেখে ডিজাইন করবেন। যেটাকে বলা হয় ইন্টারসেক্ট। আমি আগেই বলেছি যে, সঠিক ডিজাইন করে আপনার নিশের ‘টার্গেটেড অডিয়েন্সের’ কাছে পৌছাতে হবে। মূলত প্রোডাক্ট বিক্রির সমস্ত রহস্যই লুকিয়ে থাকে ‘টার্গেটেড অডিয়েন্সের’ কাছে।

অতঃপর............

ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করতে থাকুন, USA তে সমস্ত পাবলিকই কিন্তু কোনো না কোনো সময় টি-শার্ট পরে থাকে অথবা কফি পান করে। আপনি চাইলেই তো USA তে সমস্ত পাবলিককে টার্গেট করে একটা ডিজাইন করতে পারেন, যেমন- একটা USA এর পতাকা দিয়ে টিশার্ট ডিজাইন করে ফেললেন। না, আপনি এটা করতে গেলে লস খাবেন। বড় বড় মার্কেটারগণ এভাবে বিজনেস করতে পারলেও আপনার আমার দ্বারা সম্ভব নয়। কারণ সমস্ত USA এর পাবলিককে টার্গেট করে এ্যাডস্ দিতে গেলে সম্ভবত বিল গেটস্ এর ব্যাংক একাউন্টের এক্সেস প্রয়োজন হবে। ফ্রি মার্কেটিং এর চিন্তা করলে, গণচীনের সমস্ত পাবলিককে হাই স্পিড ইন্টারনেট সহ বসিয়ে দিতে হবে, অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়াগুলো বাদ দিলেও শুধু ফেসবুকের গ্রুপ আর পেজগুলোতে এঙ্গেজড হবার জন্যও মাসের পর মাস বছরের পর বছর সময় লেগে যাবে। এতবড় বাজেট আপনার পক্ষে যদি ম্যানেজ করা সম্ভব হয় তাহলে আলাদা কথা, যদি সম্ভব না হয় তাহলে কি করবেন? নিশকে ন্যারো ডাউন করে আপনার অডিয়েন্সকে ছোটো করতে থাকুন এবং অন্য কোনো নিশের সাথে ইন্টারসেক্টের মাধ্যমে টার্গেটেড অডিয়েন্সকে ফিল্টার করতে থাকুন।

মনে হচ্ছে মূল বিষয় থেকে সরে এসেছি, এবার একটা সামারি টেনে দেখা যাক কিছু শিখতে পেরেছি কি না। বলা হয়েছিল পৃথিবীর সমস্ত নিশেরই অডিয়েন্স আছে, অডিয়েন্সের সাইজ কম বা বেশি যাই হোক না কেনো। নিশ যা খুশি তাই সিলেক্ট করুন। আপনার নিশের অডিয়েন্সের অতিরিক্ত ইন্টারেস্টের দিকে খেয়াল রাখলেই আপনার প্রোডাক্টের বিক্রির সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

তো ভাইয়েরা আপনারা যারা এতোদিন দিধায় ছিলেন কোন নিশ নিয়ে কাজ করবেন, আমি আপনাদের দিধাটাকে আরো একধাপ বাড়িয়ে দিলাম। আমরা যেহেতু জানি যে, নিশ মানেই বিষয় বা ইন্টারেস্ট। তো এখন আপনাদের প্রশ্ন হওয়া উচিৎ ‘কোন দুইটা, তিনটা অথবা চারটা নিশ নিয়ে কাজ করবো?’

উত্তর পাবার জন্য আবার শুরু থেকে পড়তে থাকুন।

0
Shares
s m fuad
 

Click Here to Leave a Comment Below 0 comments

Leave a Reply: